ক্রাইস্টচার্চের মসজিদ আল-নূরে জুমার নামাজ পড়তে গিয়ে ভয়াবহ সন্ত্রাসী হামলার মুখে পড়েন বাংলাদেশ ক্রিকেটাররা। ভাগ্য ভালো, বাংলাদেশের ক্রিকেটাররা যাওয়ার আগেই মসজিদের ভেতরে সশস্ত্র হামলা চালায় বন্দুকধারী সন্ত্রাসীরা। এতে করে কোনো প্রকার আঘাত ছাড়াই নিরাপদে হোটেল ফিরতে পেরেছেন ক্রিকেটাররা।

এদিকে নিউজিল্যান্ডের এমন সন্ত্রাসী হামলার সময় মসজিদের কাছাকাছি থাকা তামিম ও মুশফিকদের সাথে কোনো নিরাপত্তাকর্মীই ছিলেন না। যা ভাবিয়ে তুলেছে বিসিবিকে। এ বিষয়ে আজ দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে গুলশানে নিজ বাসভবনে এক ব্রিফিংয়ে সাংবাদিকদের এ কথা বলেন বিসিবি সভাপতি।

পাপন বলেন, যে দেশেই দল যাক না কেন, দলের জন্য মিনিমাম রিকোয়ার্ড সিকিউরিটি আমাদের এনশিওর করতে হবে। এটা যারা দিতে পারবে, তাদের ওখানেই আমরা খেলতে যেতে পারব।

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে বিসিবি প্রেসিডেন্ট আরো বলেন, খেলোয়াড়দের দেশে ফিরিয়ে আনার ব্যাপারে ইতোমধ্যে পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীর সঙ্গে কথা হয়েছে। আমরা দেশ থেকে টিকিটের ব্যবস্থা করছি।

পাপন আরো বলেন, বাংলাদেশ যেভাবে বিদেশী খেলোয়াড়দের নিরাপত্তা দেয় বিদেশে সেভাবে বাংলাদেশি ক্রিকেটারদের নিরাপত্তা থাকে না।