ওয়েলিংটন টেস্টে প্রথম ইনিংসে বড় লিডের পথে স্বাগতিক নিউজিল্যান্ড। চতুর্থ উইকেটে টেলর ও হেনরি নিকোলসের সেঞ্চুরিতে দুইশো ছাড়িয়ে গেছে লিড।

টেস্টের চতুর্থ দিনে ৩৮ রানে দুই উইকেট নিয়ে ব্যাটিং শুরু করেন উইলিয়ামসন ও টেলর। তৃতীয় দিনের শেষ সেশনের ব্যাটিং ধ্বস কাটিয়ে ওঠে তারা। দলীয় ১৮০ রানে এই জুটিতে প্রতিরোধ গড়েন তাইজুল। ফিরতি বলে এ সময় ক্যাচ নিয়ে উইলিয়ামসনকে ৭৪ রানে ফেরান তাইজুল।

এদিকে চতুর্থ উইকেটে এ সময় হেনরি নিকোলসকে সঙ্গ দিয়ে বাংলাদেশের প্রথম ইনিংসেকে পেরিয়ে যায় টেলর। এ জুটি ওয়ানডে স্টাইলে ব্যাটিং করে দ্রুত রান তুলতে শুরু করে। মাত্র ১১৪ বল থেকে চতুর্থ উইকেটে ১০০ রান তোলে এই জুটি।

পরবর্তী ১০০ রান তুলতে এ জুটি খরচ করে ১১৩ বল । এ সময় টেলর ডাবল সেঞ্চুরির দিকে এগিয়ে যাচ্ছেন আর নিকোলস সেঞ্চুরির পথে। এর পরেই ১২২ বল থেকে নিজের সেঞ্চুরি পূরণ করেন নিকোলস।

নতুন বল হাতে পেয়ে বাংলাদেশ শিবিরে কিছুটা স্বস্তি ফিরিয়ে আনেন তাইজুল। এ সময় তিনি ১২৯ বল থেকৈ ১০৭ রান করা নিকোলসকে বোল্ড করেন।

পঞ্চম উইকেটে কলিন ডি গ্রান্ডহোমকে নিয়ে ডাবল সেঞ্চুরি পূরণ করেন টেলর। রাহীর বলে নিজের ক্যারিয়ারের তৃতীয় ডাবল সেঞ্চুরির মাইলফলকে পৌঁছে যান তিনি। ২১১ বলের ইনিংসে ১৯টি চার এবং ৪টি ছক্কা ছিল। এরপরই দ্রুত রান তুলতে গিয়ে মুস্তাফিজের বলে উইকেটের পেছনে লিটনের হাতে ক্যাচ দিয়ে ২০০ রান নিয়ে প্যাভিলনে ফিরে যান টেলর।

টেলর আউট হলে ওয়াটলিং ব্যাটিংয়ে আসেন। কিন্তু ৫ বলে ৮ রান করে আবু জায়েদের বলে সৌম্যের হরে ক্যাচ তুলে দেন তিনি। ওয়াটলিং আউট হলে নিউজিল্যান্ড ৮৪.৫ ওভারে ৫.০৯ রান রেটে ৬ উইকেট হারিয়ে ৪৩২ রান তুলে ইনিংস ঘোষণা করে।

বাংলাদেশের হয়ে আবু জায়েদ রাহী নেন ৩ উইকেট, তাইজুল নেন ২টি এবং একটি উইকেট নেন মুস্তাফিজ।