বৃষ্টির বাঁধায় দ্বিতীয় টেস্টের ‍দুই দিন শেষ হয়ে গেলেও এখনো মাঠে গড়ায়নি টস। তবে টেস্টের বাকি তিনটি দিনেই ম্যাচের ফল পাওয়া সম্ভব বলে মনে করছেন টাইগার দলের কোচ স্টিভ রোডস।

নিউজিল্যান্ডের আবহাওয়া দপ্তর জানাচ্ছে রবিবার থেকে টেস্টের বাকি তিন দিনে আকাশ থাকবে পরিস্কার। তাই পুরো দমেই খেলা হবে। তাই টারগার কোচের কাছে প্রশ্ন ছিল বেসিন রিজার্ভের টেস্টে কি আর ফলাফল আশা করা সম্ভব? এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘ক্রিকেট মূলত অদ্ভুত এক খেলা। আপনি প্রায়ই অনেক দুই দিন, তিন দিনের ম্যাচ দেখে থাকবেন। তাই এখনো ম্যাচে ফল আসা খুবই সম্ভব বলে মনে করি আমি। দেখা যাবে আগামীকাল প্রকৃতি আমাদের কেমন আবহাওয়া উপহার দেয়।’

এদিকে টেস্টের তৃতীয় দিনে টসে জীতলে বাংলাদেশ যেনো বোলিং নেয় সেটি আগেই জানিয়ে রাখলেন তিনি। তিনি বলেন, ‘আশা করছি আগামীকাল আমরা টসে জিতবো এবং শুরুতেই নিউজিল্যান্ডের কিছু উইকেট তুলে নিতে পারব। যদি তা না হয় তাহলে দেখেশুনে কিছু রান করতে হবে।’

দ্বিতীয় দিনে বৃষ্টির বিরতিতে উঠানো হয়ছিল পিচের কাভার। ফলে প্রথমবারের মতো দেখা মেলে দ্বিতীয় টেস্টের উইকেটের। যেখানে ঘাসের আধিক্য এত বেশি যে আউটফিল্ডের সঙ্গে উইকেটকে আলাদা করা বেশ মুশকিল কাজই বটে। এ উইকেটে দুই দলের পেসাররাই হবেন ম্যাচের গতি নির্ধারক- তা বলে দেয়াই যায়।

বাংলাদেশ ক্রিকেট দল আগেই আভাষ দিয়েছিলো একাদশে চার পেসার খেলানোর। বাংলাদেশের ১১৩ টেস্ট খেলার ইতিহাসে মাত্র ছয় বার একাদশে চার পেসার খেলিয়েছিল। যার শেষটি ২০০৩ সালে অস্ট্রেলিয়া সফরে। ১৬ বছরের ব্যবধানে আবারও চার পেসার নিয়ে টেস্ট একাদশ করতে পারে বাংলাদেশ।

ওয়েলিংটন টেস্টের প্রথম দুই দিনের বৃষ্টির দাপট সেই সম্ভাবনা জোরালো করেছে। তাই উইকেটের কথা মাথায় রেখে খালেদ, রাহী, এবাদতের সঙ্গে একাদশে পেসারদের নেতৃত্ব দিতে পারেন মুস্তাফিজ।

আবহাওয়ার কারণে নিউজিল্যান্ড টেস্টের দ্বিতীয় দিনে বেসিন রিজার্ভের উইকেট পেসারদের জন্য এখন আরো বেশি আদর্শ। তাই চার পেসার নিয়ে একাদশ করার চিন্তা ঘুরপাক খাচ্ছে ম্যানেজমেন্ট পরিকল্পনায়।