শুক্রবার দুপুরে ক্রাইস্টচার্চের পাশের একটি মসজিদে বন্দুকধারীরর হামলায় ৪৮ জন নিহত হয়েছেন। এই ঘটনায় অল্পের জন্য রক্ষা পেয়েছেন বাংলাদেশ ক্রিকেটাররা৷

শনিবারের ম্যাচের আগে আনুষ্ঠানিক সংবাদ সম্মেলনে ৫-৬ মিনিট দেরি না হলে হামলার সময় ঠিক ঘটনাস্থলেই উপস্থিত থাকতেন বাংলাদেশ দলের ক্রিকেটাররা। ঘটতে পারত কল্পনাতীত কোনো ঘটনা।

ঘটনার পর এখন সকল ক্রিকেটাররা নিরাপদেই হোটেলে অবস্থান করছেন। এর মধ্যেই বাতিল করা হয়েছে শেষ টেস্ট। তাই ক্রিকেটারদের দ্রুত দেশে ফিরিয়ে আনার ব্যবস্থাও করা হচ্ছে। এই ঘটনায় সতীর্থদের সুস্থতায় আল্লাহর প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন সাকিব আল হাসান।

সাকিব তার ভেরিফাইড টুইটার একাউন্টে লেখেন, ‘নিউজিল্যান্ডে হওয়া হামলার ব্যাপারে কিছু বলার ভাষা নেই আমার। শুধু এটুকু বলতে চাই যে মহান আল্লাহ্‌’র প্রতি আমি কৃতজ্ঞ যে তিনি আমার ভাই, আমার সতীর্থদের রক্ষা করেছেন। আলহামদুলিল্লাহ্‌।’

এছাড়া সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ভিন্ন এক বার্তায় সাকিব লিখেন, ‘যেকোনো ধরনের জঙ্গি কর্মকাণ্ড কখনোই সমর্থনযোগ্য নয়। এটার মাত্রা আরও তীব্র হয়ে যায় যখন নামাজ পড়তে থাকা নিরীহ মানুষদের ওপর হামলা করা হয়।

আমার দোয়া থাকবে এই কাপুরোষিচিত হামলায় হতাহতদের জন্য। আমি আল্লাহ্‌কে ধন্যবাদ জানাতে চাই আমাদের দলকে এই হামলার হাত থেকে নিরাপদ রাখায় এবং সুস্থ্যভাবে হোটেলে ফেরত নেয়ায়।’

এদিকে তামিম পত্নী আয়েশা নিজের ফেসবুক প্রোফাইলে নিজের স্বামী ও তার সতীর্থদের জন্য দেয়া চেয়েছেন। তিনি লিখেছেন, ‘ঘুম থেকে উঠেই ক্রাইস্টচার্চে মসজিদে হামলার ভয়াবহ খবরটা পেলাম। এটা বিধ্বংসী। হামলায় হতাহতদের জন্য আমার প্রাণ বেরিয়ে যাচ্ছে। মহান আল্লাহ্‌ তা’আলা তাদের পরিবারকে শক্তি দিন।

মেসেজের জন্য সবাইকে ধন্যবাদ। আলহামদুলিল্লাহ্‌! তামিম নিরাপদ আছে। দয়া করে সবাই তার জন্য দোয়া করবেন।’