নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চের মসজিদ আল নূর জাম্বারে বন্দুকধারীদের হামলার পর দুই বোর্ডের আলোচনার ভিত্তিতে তৃতীয় ও শেষ টেস্ট বাতিল ঘোষণা হল।

শুক্রবার হ্যাগলি ওভাল স্টেডিয়ামে প্রেস কনফারেন্স করে এ ঘোষণা দেন বোর্ডের প্রধান নির্বাহী ডেভিড হোয়াইট। তিনি বলেন, ‘নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ডের পক্ষ থেকে নিহতদের পরিবারের প্রতি সমবেদনা। আমরা শনিবারের ম্যাচটি বাতিল করেছি। বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের কর্তাব্যক্তিদের সঙ্গে আলোচনা করেই এমন সিদ্ধান্তে উপনীত হয়েছি আমরা। কারণ এমতাবস্থায় ক্রিকেট খেলার কোনো পরিবেশ নেই।’

হামলার ঘটনার ম্যাচটি চলবে কিনা এ নিয়ে দোটানায় ছিল উভয় বোর্ড। শেষ পর্যন্ত কিউই ও বাংলাদেশের খেলোয়াড়রা ম্যাচটি নিয়ে আপত্তি প্রকাশ করায় ম্যাচটি বাতিল ঘোষণা করা হয়। ম্যাচ বাতিল হওয়ায় বাংলাদেশ দলের সদস্যরা কবে দেশে ফিরবেন সে ব্যাপারে খুব শিগগিরই সিদ্ধান্ত নেবে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড ও নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ড।

উল্লেখ্য হামলার সময় মসজিদটির খুব কাছেই ছিলেন বাংলাদেশ দলের ক্রিকেটাররা। জুম্মার নামাজ আদায় করতে মসজিদে ঢোকার মুখে অজ্ঞাত এক নারীর কাছ থেকে হামলার সতর্কবার্তা পেয়ে কোনোরকমে বেঁচে ফিরেছেন তামিম, মিরাজ, তাইজুলরা। পরে, শুরুতে ঘটনাস্থল থেকে অদূরবর্তী হাগলি ওভাল স্টেডিয়ামের ড্রেসিংরুমে অবস্থান নেন টাইগাররা এবং পরে নিজেদের টিম হোটেলে ফিরে যান বাংলাদেশ দলের ক্রিকেটাররা।